সোমবার, ২২ মার্চ, ২০২১

'অ-হিন্দুদের প্রবেশ নিষেধ' পোস্টার দেহরাদুনে

পুবের কলম, দেহরাদুন: উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদে এক মন্দিরে ঢুকে কল থেকে জল খাওয়ার অপরাধে এক মুসলিম কিশোরকে বেধড়ক মারধর করা হয় সেই ঘটনার কয়েক দিন যেতে না যেতেই এবার উত্তরাখণ্ডের দেহরাদুন জেলায় পোস্টারে পোস্টারে ছয়লাপ করে দিয়েছে হিন্দু যুব বাহিনী সেই পোস্টারে লেখা হয়েছে, -হিন্দুদের মন্দিরে প্রবেশ নিষেধ জেলার প্রায় ১৫০ থেকে ২০০ মন্দিরের সামনে এই পোস্টার লাগানো হয়েছে


উল্লেখ্য, গাজিয়াবাদে মুসলিম কিশোরকে মারধরের ঘটনার পরই সেখানকার মন্দিরের প্রধান পুরোহিত মহন্ত ইয়াতি নারাসিংআনন্দ সরস্বতী এই ধরনের একটি পোস্টার লাগান ওই পুরোহিতকে সমর্থন জানিয়ে দেহরাদুনের মন্দিরগুলির সামনে এই ধরনের পোস্টার লাগায় হিন্দু বাহিনী শুধু তাই নয়, গাজিয়াবাদ-কাণ্ডের পর হিন্দু যুব বাহিনীর সদস্যরা ওই পুরোহিতের সঙ্গে দেখাও করেছিলেন এই পোস্টারের ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে দেহরাদুনের পুলিশ সুপার সারিতা দোভাল বলেন, তাঁর কাছে এই ধরনের কোনও খবর নেই বিষয়টি সম্পর্কে নিশ্চিত না হয়ে তিনি এই নিয়ে কোনও মন্তব্য করবেন না দেহরাদুনের জনসংযোগ অফিসার (পিআরও) প্রদীপ সিং রাওয়াত জানান, এই ধরনের পোস্টার টাঙানোর খবর নজরে এসেছিল কিন্তু ২১ মার্চ বিকেলের মধ্যেই তা খুলে নেওয়া হয়েছে যদিও রাওয়াতের এই দাবি শুনে হেঁসেছেন উত্তরাখণ্ডের হিন্দু যুব বাহিনীর সভাপতি গোবিন্দ ওয়াধোয়া তাঁর পালটা দাবি, সব পোস্টারই টাঙানো রয়েছে কোনওটা খোলা হয়নি ওয়াধোয়া আরও জানান, ২০ মার্চ থেকে তাঁদের এই প্রচার শুরু হয়েছিল স্থানীয় লোকদের সাহায্য নিয়ে তাঁর সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবকরা এই পোস্টার টাঙিয়েছেন ১৫০-২০০ মন্দিরের সামনে এই ধরনের পোস্টার টাঙানো হয়েছে সংখ্যাটা আরও বাড়বে তাঁর যুক্তি,  দেবদেবীর মূর্তি ভাঙা হচ্ছে শিবলিঙ্গে পিক ফেলা হচ্ছে আর কত দিন এমনটা চলতে পারে? কোনও হিন্দু একাজ করবে না এসব -হিন্দুদেরই কাজ তাই তাদের মন্দিরে প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে যাতে মন্দিরের পবিত্রতা অটুট থাকে

 হিন্দু বাহিনীর সভাপতির কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল সাম্প্রতিক সময়ে এই ধরনের কোনও ঘটনা ঘটেছে কিনা? জবাবে অবশ্য তিনি বলেছেন সাম্প্রতিককালে দেহরাদুনে এই ধরনের কোনও ঘটনা ঘটেনি ঠিকই কিন্তু দেশের কোথাও না কোথাও তো ঘটছেই আগাম সুরক্ষা হিসেবে আমরা এটা করেছি এটা করে আমরা কোনও ভুল করিনি এই ধরনের পোস্টার টাঙানোর জন্য কোনও অনুমতি নেওয়া হয়েছে কিনা জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, আমার ঘরকে রক্ষা করতে হলে আমাকে কি পুলিশের থেকে অনুমতি নিতে হবে?

উল্লেখ্য, পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের দাসনাতে মন্দিরের সামনেও এই ধরনের পোস্টার দেওয়া হয়েছে দাসনার প্রশাসন জানিয়েছে, তারা এই ধরনের পোস্টারের ব্যাপারে শুনেছে সেগুলি খুলে নিতে বলা হয়েছে 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only