শনিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২১

বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনা ছাড়া বিধাননগরে শান্তিতে ভোট



পুবের কলম প্রতিবেদক: বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনা ছাড়া মোটের উপর শান্তিপূর্ণ ভাবেই মিটল পঞ্চম দফার রাজারহাট-নিউ টাউন, বিধাননগর, রাজারহাট-গোপালপুর এবং দমদম বিধানসভার ভোট পর্ব। শনিবার সকাল থেকেই চার কেন্দ্রে নির্বিঘ্নে ভোটদান শুরু হলেও, কিছু কিছু জায়গায় থেকে অশান্তির খবর ছড়ায়। পূর্ব আশঙ্কমতোই ভাবেই এদিন সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ প্রথমে বিধাননগরের শান্তিনগরে বাসন্তিদেবী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বুথে তৃণমূল-বিজেপির সংঘর্ষ রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়। ভোটের লাইনে দাঁড়িয়ে দুপক্ষের মধ্যে শুরু হয় বচসা। আর থেকে রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়ে উভয় পক্ষের শুরু হয় ইটবৃষ্টি। জখম হন দুই দলের বেশ কয়েকজন কর্মী। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে তড়িঘড়ি আসরে নামে বিধাননগর কমিশনারেটের শীর্ষ পর্যায়ের আধিকারিক-সহ বিশাল পুলিশ কেন্দ্রীয় বাহিনী। অশান্তির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে বিধাননগরের তৃণমূল-কংগ্রেসের প্রার্থী সুজিত বসু এবং বিজেপি প্রার্থী সব্যসাচী দত্ত পৌঁছাতে দুই দলের কর্মী-সমর্থকেরা আরও উত্তেজিত হয়ে পড়ে। যদিও মুহূর্তের মধ্যে গোটা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় পুলিশ। 

এদিকে শান্তিনগরের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসতে ঘটনাস্থলেই সংবাদ মাধ্যমের সামনে দাঁড়িয়ে সুজিত বসুর অভিযোগ, ‘শান্তিনগরে শান্তিপূর্ণ ভাবেই ভোট হচ্ছিল। সেখানে বিজেপির প্রার্থী বাইরে থেকে লোক এনে ভোটের লাইনে এতো লোক দেখে মানুষের গায়ে হাত দিয়ে বিরক্ত করছিলেন। এতেই মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন যদিও সব্যসাচী পাল্টা অভিযোগ, ‘শান্তিনগরে ওই বুথে বহিরাগত প্রচুর লোক জমায়েত হয়েছে। ভোটোরদের রাস্তায় আটকে দেওয়া হচ্ছে। এই খবর পেয় ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখি ঘটনাটি বাস্তব। বিধাননগর এক পুলিশের অফিসারের নেতৃত্বে কাজটি হচ্ছিল। এই প্রতিবাদ করাতেই উত্তেজনা তৈরি ছড়ায় অন্যদিকে, দুপুর ১২-টা নাগাদ বিধাননগর পুরনিগমের ৩৫ নম্বর ওয়ার্ড নয়াপট্টিতে অশান্তি ঘটে। অভিযোগ, এখানে স্থানীয় পুরনিগমের কো-অর্ডিনেটর জয়দেব নস্করকে দেখে বিজেপি প্রার্থীর কটুক্তিকে ঘিরে উত্তেজনা তৈরি হয়। জয়দেবের অভিযোগ, ‘ভোট দেওয়ার জন্য নিজের বাড়ি থেকে বার হতেই বিজেপিপ্রার্থী আমাকে দেখে অকথ্য ভাষায় কথা বলতে শুরু করে। সেই সঙ্গে লাইনের ভোটারদের প্রভাবিত করতে থাকে। বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ করাতে, গুলি করে প্রাণে মারার হুমকি দেন প্রার্থীর সঙ্গে থাকা কেন্দ্রীয় বাহিনী জওয়ানরা এদিন শান্তিনগর নয়াপট্টির বিক্ষিপ্ত দুই ঘটনা ছাড়া বিধাননগর দমদম জুড়ে মোটের উপর শান্তিতেই গণতান্ত্রিক উৎসবে সামিল হয়েছেন নাগরিকেরা। 

তবে এদিন সকালে ভোটপর্ব শুরু হতেই ইভিএম গোলযোগে বহু কেন্দ্রে ভোটদানে বিঘ্ন ঘটেছে। রাজারহাট গোপালপুরে ৩৮, ৩৯, ৪০, ৪১ নম্বর বুথ রাজারহাট নিউ টাউনে ৫৯   ২৭৯ এপিজে আধুল কালাম কলেজ বুথে ২৭৯, ২৩৪এ-সহ আরও বেশ কিছু বুথে ইভিএম সমস্যা তৈরি হয়। নির্বিঘ্নে ভোটে মেটাতে এদিন বিধাননগর জুড়ে ছিল ২৫০০ রাজ্য পুলিশ ৪৬ কোম্পানির কেন্দ্রীয় বাহিনী। নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর পঞ্চম দফার দিনে বিকাল সাড়ে তিনটে পর্যন্ত বিধাননগরে মোট ভোট পড়েছে ৬১ শতাংশ। রাজারহাট নিউ টাউনে ৬৫.৬৮ শতাংশ এবং রাজারহাট গোপালপুরে ৫৬.৮৩ শতাংশ। এই সময়কালে উত্তর ২৪ পরগনা জেলা জুড়ে ৬৫.৫২ শতাংশ ভোট পড়েছে।

 

 

 

 

 

 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only