মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল, ২০২১

হাজারের বেশি চিতা সাজিয়েও রোষের মুখে মুসলিম যুবকরা

 



পুবের কলম প্রতিবেদন: ভদোদরার খাসওয়াড়ি শ্মশান দিনটা জুম্মাবার সময় বিকেলের কিছু আগে এক বিজেপি নেতার শেষকৃত্যে উপস্থিত শহরের বিজেপি নেতারা চিতা সাজানোর কাজ চলছে পুরোদমে বিজেপি ভদোদরার শহর সভাপতি ডাঃ বিজন শাহের নজরে পড়ে গেল কয়েকজন মুসলিম যুবক শ্মশানের ভিতর চিতা সাজানোর কাছে মাথায় টুপি পরা যুবকদের দেখে চটে লাল বিজন শাহ কেয়ারটেকারকে ডেকে জানতে চাইলেন, এরা এখানে কেন এখনই বের করে দিন হিন্দুদের অন্তিম সংস্কারের সময় কেবল হিন্দু ধর্মের মানুষরাই থাকবে কেয়ারটেকার জানান, এরা স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে শ্মশানে কাজ করছে বহু সময় ধরে আসলে আজ শুক্রবারওদের জুম্মার দিন তাছাড়া রমযানের সময়, তাই নামাযের পরপরই টুপি-পরা অবস্থায় এখানে চলে এসেছে করোনায় মৃতু্য হয়েছে এমন লাশের সঙ্গে অনেক সময় কেউ আসে না তখন এই মুসলিম যুবকরা অন্তিম সংস্কারের উদ্যোগ নিচ্ছে তাছাড়া এই শ্মশানে কাঠ গোবর, ঘুঁটের সরবরাহের দায়িত্ব পালন করছেন একজন মুসলিম করোনা পরিস্থিতিতে ভয়াবহ অবস্থা দেখে তিনি এইসব ভলান্টিয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন রোজ পালা করে এই যুবকরা এখানে আসে তবুও গুস্সা কমেনি শাহের নির্দেশ দিলেন মুসলিমরা শ্মশানের ভিতরে যেন আর না আসে আর জ্বালানি গেটের বাইরে রাখার জন্য বলে দিন হিন্দু ধর্মের ২৭ রকমের সংস্কারের অন্তিম সংস্কারের কী বুঝবে ভিন ধর্মের মানুষ?   এখনই চিতার কাছ থেকে সরিয়ে দিন ওদের

বিজেপি নেতার এই আচরণ মন্তব্য ছড়িয়ে পড়ে খাস ওয়াড়ি শ্মশানের বাইরে অবশ্য ভদোদরা পুরসভার মেয়র কেওর রোকাদিয়া বিজেপি নেতার এই মন্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করেন না মেয়র ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে জানান, মৃত্যু নিয়ে রাজনীতি কাম্য নয় এই মহামারি পরিস্থিতিতে ধর্ম খোঁজার চেষ্টা করা আদৌ উচিত হবে না

 

আলোচনা করে এই বিষয়টির সমাধান করা হবে তবে এই কঠিন সংকটের সময় সমস্ত সম্প্রদায়কে একসঙ্গে কাজ করতে হবে ভদোদরা পুরসভার অন্যান্য বিজেপি নেতারাও একই মত পোষণ করেছেন তাঁরা জানিয়েছেন, এখন এইসব বিষয় নিয়ে বাছবিচার করা ঠিক নয়

তবে বিজেপি নেতা শাহের এই মন্তব্যে বিজেপি বেজায় অস্বস্তিতে পড়েছে যা মেয়রের মন্তব্য থেকে স্পষ্ট হয়েছে মেয়র সাফ জানান, মুসলিম যুবকদের এই স্বেচ্ছাশ্রম আমরা কোনওভাবেই অস্বীকার করতে পারি না

শ্মশানের কেয়ারটেকার জানান, অনেক সময় করোনায় মৃত ব্যক্তির সঙ্গে কেউ আসে না পরিবারের অনেকে করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি থাকে আবার কারোর পরিবারের সদস্যরা ভয়ে শেষকৃত্যে উপস্থিত থাকতে চায় না এই ধরনের পরিস্থিতিতে মুসলিম যুবকরাই এগিয়ে আসছে করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে এক বছর আগে থেকেই ওরা এই কাজ করছে এখন প্রচুর লাশ আসছে ওরা আত্মীয়-পরিজন সঙ্গীহীন লাশের চিতা সাজানোর কাজ করে লাশ বয়ে নিয়ে আসে এই সেবামূলক কাজ এতদিন কারও নজরে পড়েনি

তিনি জানান, পর্যন্ত প্রায় এক হাজার ধরনের লাশের অন্তিম সংস্কারে মদত করেছে মুসলিম যুবকরা, যে সব লাশের সঙ্গে পরিবারের সদস্যরা কেউই আসেনি একটা লাশ জ্বলতে ৬০০ ঘুঁটের প্রয়োজন হয়, তার দাম ৫৫০ টাকা ঘুঁটে বিক্রির এই সামান্য টাকা পাওয়ার জন্য তারা এসব করছে এমন ভাবা কখনও উচিত নয়

বিজেপি নেতা ডাঃ বিজন শাহের মন্তব্য ছড়িয়ে পড়ায় অস্বস্তি বেড়েছে সব মহলেই গুজরাতে মন্ত্রিসভার সদস্য যোগেশ প্যাটেল ভদোদরা পুরসভার মেয়র এবং ওএসডি বিনোদ রাও রবিবার ভদোদরার মুসলিম নেতা ধর্মীয় ব্যক্তিত্বদের সঙ্গে এক বৈঠকে মিলিত হন এই করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে সকলে একজোট হয়ে কাজ করার কথা বলেন তাঁরা শ্মশানে মদদগার মুসলিম যুবকদের কাজের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং তাদের ধন্যবাদও জানান লাশের সৎকার নিয়ে বিজেপি নেতার ঘৃণ্য রাজনীতির সমালোচনায় সরব হয়েছেন বিজেপি নেতারাও

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only