সোমবার, ৫ এপ্রিল, ২০২১

'অত্যাচারের প্রতীক' গুয়ান্তানামো বে বন্ধ হবে! ১৪ বছরের অবিচারের সমাপ্তি

পুবের কলম,ওয়াশিংটন: গুয়ান্তানামো উপকূলীয় ডিটেনশন কেন্দ্র পনেরোতম বছরে পড়ল গুয়ান্তানামো অত্যাচার আত্মসমর্পণের প্রতীক কোনও মূল্যায়ন বা বিচার ছাড়াই এখানে অনির্দিষ্টকালের জন্য আটকে রাখা হয় ২০০৯ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ার পর বারাক ওবামা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে, এক বছরের মধ্যেই তিনি এই শিবির বন্ধ করে দেবেন এই ডিটেনশন কেন্দ্রের এক গোপন ইউনিটের অবস্থা খারাপতর হওয়ায় তালা বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং বন্দিদের পাঠিয়ে দেওয়া হয় কিউবায় মার্কিন ঘাঁটিতে রবিবার এমনটাই জানালো মার্কিন সেনা ক্যাম্প -এর বন্দিদের অন্য মার্কিন ঘাঁটিতে সরিয়ে নিয়ে যাওয়াকে ইউএস সাউদার্ন কম্যান্ড 'কাজের সক্ষমতা প্রভাব বৃদ্ধির' চেষ্টা বলে ঘোষণা করেছিল এক বিবৃতিতে কিউবার দক্ষিণ-পূর্ব সীমানায় বন্দি শিবির দেখভাল করে মায়ামি-ভিত্তিক সাউদার্ন কম্যান্ড কত জন বন্দিকে সরানো হয়েছিল সে সম্পর্ক তারা কিছু জানাতে চায়নি প্রশাসকরা আগে জানিয়েছে যে, প্রায় ১৪ জনকে ক্যাম্প - আটকে রাখা হয়েছিল গুয়ান্তানামোতে আছে ৪০ জন বন্দি সাউদার্ন কম্যান্ড জানিয়েছিল, ক্যাম্প -এর বন্দিদের নিয়ে যাওয়া হয়েছে ক্যাম্প - 'নিরাপদভাবে' কিন্তু কবে বা কখন এই স্থানান্তরণ হয়েছিল তা জানাতে অনিচ্ছুক তারা



২০০৬ সালের ডিসেম্বর মাসে সিআইএ ডিটেনশন ভবনে খোলা হয়েছিল ক্যাম্প এই ভবনকে বলা হয় 'ব্ল্যাক সাইট' কারণ এখানেই চলে অত্যাচার নিষ্ঠুর ভাবে প্রশ্নোত্তর পর্ব সিআইএর অধীনে এই কাজ করে সেনারা  ঘাঁটিতে ক্যাম্প থাকার কথা লাগাতার অস্বীকার করে সেনারা এবং কোনও রিপোর্টারকে এই এলাকার ভিতর ঢুকে পরিদর্শনের অনুমতি দেয় না তারা আধিকারিকরা জানায়, ওই অস্থায়ী ইউনিটের নির্মাণগত ত্রুটি ছিল এবং সংস্কারের প্রয়োজন ছিল কিন্তু এর উন্নতির জন্য অর্থ দেওয়ার প্রস্তাব বাতিল করে পেন্টাগন ক্যাম্প - পাঁচ বন্দির উপর যুদ্ধাপরাধের চার্জ ছিল ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরে সন্ত্রাসবাদী হামলায় তাদের জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন জানিয়েছেন যে, তিনি গুয়ান্তানামো বন্ধ করে দেওয়ার পরিকল্পনা করছেন তবে এর জন্য কংগ্রেসের অনুমতি দরকার কারণ বিচার কারাবাসের জন্য কিছু বন্দিকে আমেরিকায় সরাতে হবে









একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only