রবিবার, ৬ জুন, ২০২১

পিৎজা হোম ডেলিভারি হলে, রেশন কেন নয়? কেন্দ্রের আচরণে দেশের মানুষ দুঃখিত, কটাক্ষ কেজরিওয়ালের



পুবের কলম, ওয়েবডেস্ক: পিৎজা,  বার্গার, স্মার্ট ফোন, জামা-কাপড় যদি হোম ডেলিভারি হতে পারে, তাহলে রেশন রাজ্যের মানুষের বাড়িতে পৌঁছে দিতে অসুবিধা কোথায়? ‘ডোরস্টেপ ডেলিভারি অফ রেশন’ স্কিমে অনুমতি না দেওয়ার পরেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।  

রবিবার এক ভার্চুয়াল সাংবাদিক বৈঠকের মাধ্যমে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফেটে পড়েন মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল। কেজরিওয়াল বলেন, ‘ডোরস্টেপ ডেলিভারি অফ রেশন’ প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য কেন্দ্রের কাছে পাঁচবার অনুমতি চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু কেন্দ্র অনুমতি দেয়নি। তবে রাজ্যে এই প্রকল্প চালুর  জন্য কেন্দ্রের অনুমতির কোনও প্রয়োজন নেই। কিন্তু আমরা কেন্দ্রের সঙ্গে কোনও বিরোধ চাই না। কিন্তু কেন্দ্র রাজ্যের এই প্রকল্পে রাজি হলে প্রায় দিল্লির ৭২ লাখ মানুষ উপকৃত হতে পারত।

একইসঙ্গে তিনি বলেন, করোনা সংকটে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মহারাষ্ট্র, দিল্লি, ঝাড়খণ্ড, লাক্ষাদ্বীপ, কৃষক সকলের সঙ্গেই কেন্দ্র যেন এক বিরোধিতায় নেমেছে। যা মেনে নেওয়া যায় না। 

এই প্রস্তাব বাতিল হওয়ার পিছনে কেজরিওয়াল ‘রেশন মাফিয়া’র অভিযোগ তুলে বলেন, এই প্রথম কোনও রাজ্যের সরকার রেশন মাফিয়াদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছিল, কিন্তু কেন্দ্রের জন্যই তা সম্ভব হল না। কেজরিওয়াল ক্ষোভের সঙ্গে বলে ‘দেশের মানুষ খুব দুঃখিত কেন্দ্রের এই ধরনের মানসিকতা দেখে। কেন্দ্র যদি রাজ্যগুলির সঙ্গে এইভাবেই বিরোধিতা করতে থাকে, তাহলে কিভাবে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করবে তারা! ‘ডোরস্টেপ ডেলিভারি অফ রেশন’ প্রকল্পের অনুমতি দিলে আমি পুরো কৃতিত্বটাই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দিতাম। রেশন বিজেপি ও আপের অন্তর্ভূক্ত নয়। সাধারণ গরীব মানুষ চায় সরকার তাদের পাশে থাকুন। কিন্তু এই অবস্থার মধ্যেও কেন্দ্র হাত গুটিয়ে বসে আছে!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only