বৃহস্পতিবার, ১০ জুন, ২০২১

'প্রতিবেশীকে ভালোবাসুন’ ক্ষমা ও দানশীলতাই রুশ সভ্যতার ইতিহাস: পুতিন

 



পুবের কলম, ওয়েবডেস্ক: সম্প্রতি সমাজকর্মীদের উদ্দেশ্যে ভাষণ রেখেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তাঁর ভাষণে উঠে এসেছে জাতীয় মূল্যবোধের সংরক্ষণ ও দেশের ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতি এবং সমাজের নানান কথা। সমাজকর্মীদের জাতীয় গুরুত্ব তুলে ধরে তাদের জন্য একটি জাতীয় দিন ঘোষণা করেছেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। বলেছেন, তাঁর দেশের নাগরিকরা অভাবগ্রস্তদের জন্য ভালোবাসা ও যত্নের মূল্যবোধকে সঙ্গে নিয়ে চলেন। এটাই রাশিয়ার ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতি। অসহায় ও হতদরিদ্রদের সাহায্য করার গুরুত্ব প্রসঙ্গে পুতিনের বক্তব্য, ’ক্ষমা, প্রতিবেশীর প্রতি ভালোবাসা এবং অভাবীদের সহায়তা করা আমাদের দেশের জনগণের শতাব্দী প্রাচীন ইতিহাসকেই তুলে ধরে।’ 

পুতিন বলেন, জীবনে ভালো থাকাই সব শ্রেণীর মানুষের মৌলিক লক্ষ্য, তাই দানশীলতার মাধ্যমে একজন ভালো প্রতিবেশী হওয়াটা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। রুশ সমাজে শান্তি কায়েমের এসব উপায় ও পরামর্শ বাতলে দেওয়ার পর বিগত বছরের ডিসেম্বরে প্যারিসে এক স্কুল শিক্ষকের শিরশ্ছেদের প্রসঙ্গ টেনে আনেন তিনি। প্যারিসে প্রফেট মুহাম্মদ সা.র ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন শিক্ষার্থীদের দেখিয়েছিলেন সেই শিক্ষক। এরপর সেই ক্লাসেরই কোনও এক শিক্ষার্থী ওই শিক্ষকের শিরশ্ছেদ করে। 

এ বিষয়ে পুতিন মত যে পোষণ করেছেন তা বেশ ধর্মনিরেপক্ষ। ফরাসি শিক্ষকের শিরশ্ছেদের ঘটনায় রুশ প্রেসিডেন্ট যেকোনও ধর্মে বিশ্বাসীদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে বলেন, ’এটা সকলেরই জানা যে, যেখানে একজন মানুষের স্বাধীনতা শুরু হয় সেখানে অপর একজনের শেষ হয়।’ তাই যিনি বিচারবুদ্ধিহীন হয়ে কোনও ধর্মের মানুষের অধিকার ও আবেগে আঘাত হানার চেষ্টা করেন তার মনে রাখা উচিত এর তীব্র প্রতিক্রিয়া আসবেই।’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only