মঙ্গলবার, ৮ জুন, ২০২১

আগ্রার হাসপাতালে অক্সিজেন বন্ধ করে 'মক টেস্ট', প্রাণহানি ২২ জন করোনা রোগীর!

 



পুবের কলম, ওয়েবডেস্ক: করোনা থেকে সেরে উঠতে যখন রোগীরা সুস্থতার আশায় হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। রোগীদের ভরসার জায়গা হল হাসপাতাল। কিন্তু আগ্রার এক হাসপাতালের এক কাণ্ডজ্ঞানহীন চিত্র ধরা পড়ল। অভিযোগ, ওই হাসপাতাল 'মক ড্রিল' এর জন্য পাঁচ মিনিট অক্সিজেন বন্ধ করে রাখে। এই ঘটনা ছিনিয়ে নিল ২২ জন রোগীর প্রাণ। হাসপাতালটিকে সিল করে দেওয়া হয়েছে।

গত ২৮ এপ্রিলের হাসপাতালের একটি ভিডিয়ো ক্লিপ সামনে এসেছে। সেই ভাইরাল হওয়া ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, কাউকে কিছু না-জানিয়ে চুপিসাড়ে অক্সিজেনের ভুয়ো মহড়া (Oxygen Mock Drill)  চালানো হয় বলে অভিযোগ৷ অক্সিজেনের সংকটের সময়ে করোনা রোগীরা অক্সিজেন ছাড়া থাকতে পারবেন কিনা, তা বুঝে নিতে এই মক টেস্ট চালানো হয়। ৫ মিনিটের জন্য অক্সিজেন বন্ধ করে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। অভিযোগ, ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিয়ো ক্লিপে এই কথা স্বীকার করেছেন খোদ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের একজন।

ঘটনা এতটাই মর্মান্তিক যে,  মক ড্রিল শুরু হতেই মুহূর্তের মধ্যে নীল হয়ে যায় করোনা রোগীদের দেহ। মুহূর্তের মধ্যেই সব শেষ।

ভিডিয়োটি দেখার পর তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে উত্তরপ্রদেশ প্রশাসন৷ভিডিয়োয় অক্সিজেন সংকট নিয়ে কথোপকথন দেখা গিয়েছে৷ এটি যে হাসপাতালের ঘটনা, সেখানকার ম্যানেজারের সামনে বসে কথা বলতে শোনা গিয়েছে এক ব্যক্তিকে৷ হাসপাতালের ম্যানেজার তথা মালিক অরিঞ্জয় জৈনকে বলতে শোনা গিয়েছে,  'মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, আর অক্সিজেন পাওয়া যাবে না৷ মোদি নগরে একেবারেই অক্সিজেন ছিল না৷ আমরা পরিবারগুলিকে বোঝাতে শুরু করি৷ কয়েকজন কথা শোনেন৷ অনেকেই শুনতে চাইনি। তখন ভাবি, একটা ভুয়ো মহড়া করা যাক৷ তাহলে আমরা বুঝতে পারব,  অক্সিজেন ছাড়া কারা বাঁচবেন আর কারা বাঁচবেন না৷ সকাল সাতটায় এই ভুয়ো মহড়া চালানো হয়৷ এ ব্যাপারে কেউ জানত না৷"  

প্রসঙ্গত, বিগত কয়েকদিন ধরেই একের পর এক ঘটনাকে কেন্দ্র করে নাম জড়িয়েছে যোগী রাজ্যে। ফের আরও হৃদয়বিদারক ঘটনা সামনে এল। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কিভাবে এই ধরনের অমানবিক, কাজ করল, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only