শুক্রবার, ৪ জুন, ২০২১

সবাই জানে আমার ছেলে নির্দোষ– সন্ত্রাসী নয় ’ইউ পি এ আইনে গ্রেফতার কুপওয়ারার ১৫ বছরের জহুরের বাবার বিলাপ

 



পুবের কলম ওয়েবডেস্কঃবেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইন বা ইউপিএস-তে বুধবার পুলিশ গ্রেফতার করেছে জনকে তাদের মধ্যে রয়েছে কুপওয়ারা জেলার বাম হামার ১৫ বছরের জহুর আহমেদ দার তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ কি? পথ দুর্ঘটনায় মৃত এক কিশোরের  জানাযা মিছিল থেকে তারা নাকি দেশ বিরোধী স্লোগান তুলেছিল জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়গ্রেফতার হয় জন জহুরের বাবা খাজির মুহাম্মদার একজন দিন মজুর তিনি জানানআমি দূরে কাজ করতে যাই ২৯ মে বাড়ি ফেরার সময় শুনলাম জহুরের গ্রেফতারের কথা প্রধান বাড়ি এসে জহুরকে থানায় নিয়ে যায় সেখানে গেলেই গ্রেফতার করা হয় তাকে তিনি বলেনআমার ছেলে নির্দোষ সবাই জানে তবুও তাকে গ্রেফতার করা হল জহুর অনলাইনে ক্লাস করা নিয়ে সর্বদা ব্যস্ত থাকে তার খেলার সময় পর্যন্ত নেই কদিন রোজ থানায় ছুটাছুটি করছি জহুরকে ছাড়ানোর জন্য জহুরের আম্মা অসুস্থ ১২ বছর শয্যাশায়ী হার্টের রোগী সে এখনও জানে না এই গ্রেফতারের বিষয়টি জানানো হলে জহুরের আম্মার হয়তো বড় বিপদ ঘটে যেতে পারে সে জন্য বাড়িতে আলোচনাও করতে পারছি না

খাজির মুহাম্মদ  ইউএপিএ কি আইন জানেন না তার ছেলেকে মাস ছাড়ানো যাবে না এই আইনে গ্রেফতার হলে জহুরকে আবার কুপওয়ারা জেল থেকে শ্রীনগর পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে ১০০ কিলোমিটার দূরে শ্রীনগরে জেলে গিয়ে তাঁর নাবালক ছেলেকে দেখে আসবেসান্তনা জানাবেসেই সামর্থ নেই খাজির মুহাম্মদের তিনি জানানকাজে না গেলে সংসার অচল হয়ে পড়বে পরিবারে আরও কোনও রোজগার নেই কদিন কাজ বন্ধ এবার শ্রীনগরে কিভাবে যাতায়াত করব কোথায় টাকা পাব উকিল লাগানোর জন্য জহুর কাঁদতে কাঁদতে আমাকে বলছিলপাপা জলদি ইঁহাসে লে যাও মুঝে

খাজির মুহাম্মদ দার গ্রামের সরপঞ্চ বা প্রধান মারফত জেনেছেনসরকারি কাজে বাধা দেওয়াদাঙ্গা সৃষ্টি করা এবং সন্ত্রাসী কাজে যুক্ত থাকার অভিযোগ দেওয়া হয়েছে ১৫ বছরের নিরীহ স্কুল ছাত্রটির উপর তিনি বলেনআমার ছেলের জীবনটা নষ্ট করে দিল ওরা আমার জহুরকে জেলে আটকে রেখে ওদের কি লাভ? জানাযা দাফনের সময় কালেমা পাঠ করা কুরআনের আয়াত পড়া কি করে বেআইনি এবং দেশদ্রোহী কাজ হতে পারে? প্রশ্ন জহুরের বাবার মিডিয়ার সামনে কাঁদতে কাঁদতে খাজির বলেনতাহলে সকলেই কালেমা পড়েছিল জানাযায় সকলকেই গ্রেফতার করে নিয়ে যাক পুলিশ

শ্রীনগরের এক আইনজীবী সলিহ পীরজাদা বলেনসুপ্রিম কোর্টের রায় রয়েছেস্লোগান দেওয়া কোনও অপরাধ হতে পারে না না কোনও দেশদ্রোহের অভিযোগ আনা যেতে পারে এর ফলে পুলিশ এই নাবালকের বিরুদ্ধে ইউএপি আইনে চার্জ এনেছে যার ফলে ১৮০ দিন জামিনের জন্য আবেদনও করা যাবে না জাতীয় অপরাধ রেকর্ড ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী জানা যাচ্ছেজম্মু-কাশ্মীরে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ইউএপি আইনে বছরে মামলা হচ্ছিল ৬০টি করে কিন্তু ২০১৯- সেটা বেড়ে হয়েছে ২৫৫ লোকসভায় স্বরাষ্টÉ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে তথ্য দেওয়া হয় ২০১৫ সালের তুলনায় ২০১৯ সালে ৭২ শতাংশ গ্রেফতার বেড়েছে এই বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইনে


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only