বুধবার, ৯ জুন, ২০২১

মুখ্যমন্ত্রী ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে আর্থিক সহায়তা নিয়ে বজ্রাঘাতে মৃতের পরিবারের পাশে রাজ্যের দুই মন্ত্রী

 



ইনামুল হক, বসিরহাটঃ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে বজ্রাঘাতে মৃতদের পরিবারকে দেওয়া হল আর্থিক ক্ষতিপূরণ। রাজ্য সরকারের তরফে দু'লক্ষ টাকা এবং তৃণমূলের  সর্ব ভারতীয় সম্পাদক তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে এক লক্ষ  টাকা দেওয়া হয়েছে।  ইয়াস বিপর্যয়ের রেশ কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই বজ্রাঘাতে মৃত্যু রাজ্যের মানুষের কাছে নতুন আতঙ্ক হিসেবে দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে এই বিপর্যয়ে রাজ্যে মোট  ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই সেইসব মৃতদের পরিবারের পাশে থেকে মানবিক দায় বদ্ধতা পালন করল পশ্চিমবঙ্গ সরকার।  

বসিরহাটে মহকুমায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। বসিরহাট ২  ব্লকের মাটিয়া থানার চৈতা গ্রাম পঞ্চায়েতের সাদিক নগর গ্রামে  বছর পঞ্চাশের রিয়াজ উদ্দিন মন্ডল গত রবিবার ৬ই জুন বিকেল বেলায় বাড়ির বারান্দায় বসে মাছের জাল বুনছিলেন। সেই সময় হঠাৎ বাজ পড়ে। বাজের আঘাতে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়।দুস্থ পরিবারের একমাত্র রোজগারের সদস্য ছিল রিয়াজউদ্দিন। তার মৃত্যুতে গোটা পরিবার অসহায় হয়ে যায়।এছাড়াও মৃত্যু হয়েছে স্বরূপনগরের কৈজুরী এলাকার এক গৃহবধূর ও বসিরহাটের ইটিন্ডা এলাকার  এক মৎস্যজীবীর ।

এদের সকলের   পাশে দাঁড়িয়েছে রাজ্য সরকার। বুধবার বসিরহাট উত্তর বিধানসভার অন্তর্গত চৈতা গ্রাম পঞ্চায়েতের গাংগাটি গ্রামে গত দুদিন আগে বজ্রপাতে রিয়াজ উদ্দিন মন্ডল নামে একজন প্রাণ হারান।রাজ্যের মানবিক মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশে ওসর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর তরফ থেকে এক লক্ষ টাকা ও সরকারিভাবে দু লক্ষ টাকা নিয়ে সকালেই বসিরহাটের  চৈতা গ্রাম পঞ্চায়েতের  গাংআটি গ্রামে পৌঁছে যান রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু ও বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। সঙ্গে ছিলেন বসিরহাটের ২ এর  বিডিও , বসিরহাট উত্তর বিধানসভা চেয়ারম্যান এটিএম আব্দুল্লাহ রাজ্যের সংখ্যালঘু সেলের সাধারণ সম্পাদক আশিক বিল্লাহ, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি রুপা ঘোষ, স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান সোনালী বিবি, মাসুদ আলম, শাহীন সহ তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক নেতৃত্ব ।

 মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের  সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে বুধবার সকাল সাড়ে এগারোটা নাগাদ রাজ্যের বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক ও  শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু, বসিরহাট উত্তর বিধান সভার চেয়ারম্যান এটিএম আব্দুল্লাহ রনি সঙ্গে স্থানীয় নেতারা, মৃতের বাড়িতে যান । তাদের হাতে দু লক্ষ টাকার চেক ও নগদ অর্থ তুলে দেন ।পাশাপাশি ছেলেমেয়েদের পড়ার সম্পূর্ণ খরচ রাজ্য সরকার দেবে বলে আশ্বাস দেন। তারা বলেন,  যেভাবে বজ্রাঘাতে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে তাতে দুশ্চিন্তাও বাড়ছে রাজ্য সরকারের। মন্ত্রী জানান ,ইতিমধ্যে কলকাতা পৌরসভার  তরফ থেকে বজ্রপাত নিয়ন্ত্রণ মেশিন বসানো হয়েছে।  ধাপে ধাপে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় তা বসানো হবে। এছাড়াও মানুষকে সতর্ক ও সচেতনতার বার্তা দেন। মন্ত্রীরা জানান, বজ্রপাত শুরু হলে নিরাপদ স্থানে চলে যাবেন। গাছ তলায় থাকবেন না ।জল থেকে দূরে থাকুন কোন পাকা বাড়ির  নিচে থাকবেন।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only