সোমবার, ৭ জুন, ২০২১

শীতলকুচিতে ব্যালেস্টিক টিম, বাইরে জমায়েতের দিকে গুলি না চালিয়ে কেন বুথের দিকে গুলি চলল

 





রুবায়েত মোস্তাফা শীতলকুচি­ সিআইডি তদন্তের পদ্ধতি এবং গতিবিধি কার্যত এই বার্তাই বহন করল যে ভোটের দিন বুথ লক্ষ্য করেই গুলি চালিয়েছিল সিআইএসএফের জওয়ানরা

সোমবার শীতলকুচি বিধানসভার ১২৬ নম্বর বুথে এসে তদন্ত করে গেল সিআইডির ফরেনসিক দলের ব্যালেস্টিক টিমের তিন সদস্যের দল সংবাদমাধ্যমের কাছে এই টিমের সদস্যরা কোনওরকম মন্তব্য করতে রাজি না হলেও বুথ কেন্দ্রের মধ্যে তদন্ত চলাকালীন সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধিদের সেখানে উপস্থিত থাকতে দেওযü হযü তদন্তকারী এই দলটি দেখেন যে আমতলী মাধ্যমিক শিক্ষা কেন্দ্রের এই বুথে চতুর্থ দফা নির্বাচনের দিন স্কুল ঘরের দরজা ভেদ করে ব্ল্যাক বোর্ডে গুলি লাগে এদিন তদন্তকারী দলটি সেই গুলি যে জাযগাটিতে লেগেছে সেই জাযগাটাকে চিহ্নিত করেন

জানা গিয়েছে ভোটকেন্দ্রের ঘরের বাইরে গণ্ডগোল হলেও বুথের তথা স্কুল ঘরের ভেতরে ব্ল্যাকবোর্ডে মিলেছে গুলির দাগ বাইরে অশান্তি হলেও গুলি কীভাবে ভেতরে পৌঁছোলো তা খতিয়ে দেখতেই এদিন ঘটনাস্থলে আসেন সিআইডির এই ফরেন্সিকের ব্যালেস্টিক টিমের সদস্যরা তদন্তকারী দল প্রকাশ্যে মন্তব্য করতে রাজি না হলেও বুথ কেন্দ্রের দরজা ভেদ করে ব্ল্যাক বোর্ডে গুলি লাগায় ভোটের দিন বুথ লক্ষ্য করেই গুলি চালনার পক্ষে কার্যত মত জোরালো হচ্ছে বলে অনুমান অনেকের

এদিন সকাল সাড়ে ১১ টা নাগাদ সিআইডির ফরেনসিক দলের ব্যালেস্টিক টিমের অফিসাররা শীতলকুচির জোড়পাটকি এলাকার /১২৬ নম্বর বুথে এসে পৌঁছান প্রায় আড়াই ঘণ্টা ধরে তদন্ত চালান সিআইডির ওই অফিসাররা বুথের ভিতরে ঢুকে ব্ল্যাক বোর্ডে থাকা গুলির চিহ্ন নির্দিষ্ট করেন দরজার যে অংশে গুলির চিহ্ন রয়েছে সেখানে বিশেষ এক ধরনের কেমিক্যাল ব্যবহার করতে দেখা যায় ওই সিআইডি আধিকারিকদের গুলির চিহ্ন থেকে ফিতে দিয়ে মেপে কতদূর থেকে কি ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করে ওই গুলি চালানো হয়েছিল সেটাও বুঝে ওঠার চেষ্টা করেন এরপর ফের বুথ কেন্দ্রটি তালা মেরে সেখানে অনুমতি ছাড়া ভিতরে প্রবেশ নিষিদ্ধ বলে নোটিশ ঝুলিয়ে তদন্তকারী অফিসাররা সেখান থেকে চলে যান সাংবাদিকরা বারবার তদন্তকারী আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করলেও তাঁরা সংবাদ মাধ্যমে বলার লোক নন বলে জানিয়ে দেন

উল্লেখ্য গত ১০ এপ্রিল শীতলকুচি বিধানসভা এলাকাযü ১২৬ নম্বর বুথ আমতলী মাধ্যমিক শিক্ষা কেন্দ্রে ভোট চলাকালীন সিআইএসএফ জওযüানদের গুলিতে চারজন গ্রামবাসীর মৃত্যু হযü এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজ্য রাজনীতি উত্তাল হযেü ওঠে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি নিজেই ঘটনা নিযেü খোঁজখবর নেন পরবর্তীতে তিনি নিহত পরিবারগুলোর সদস্যদের সঙ্গে দেখা করতে মাথাভাঙ্গা পর্যন্ত আসেন প্রত্যেকটি নিহত পরিবারকে একটি করে চাকরি দেওযা হয মামলার ভার তুলে দেওযা হয সিআইডির হাতে ইতিমধ্যে সিআইডি তদন্ত শুরু করে দিযেছে মাথাভাঙ্গা থানার আইসি এবং মাথাভাঙ্গা মহকুমার এসডিপিওকে ইতিমধ্যেই কলকাতায ডেকে জেরাও করেছে সিআইডি

ঘটনার তদন্তে নেমে শীতলকুচিতে এসে ইতিমধ্যেই ঘটনার পুনর্নির্মাণ করে নিযেü গেছে সিআইডির তদন্তকারী দল এদিন ফের ফরেনসিক দলের ব্যালেসটিক টিমের অফিসাররা তদন্ত করে গেলেন এরপর সিআইডি কি পদক্ষেপ করে সেদিকেই তাকিয়ে বিভিন্ন মহল

অন্যদিকে এদিন এলাকার এক  বাসিন্দা শহীদ পরিবারের সদস্য শইদুল ইসলাম  বলেন সিআইডির পক্ষ থেকে যেভাবে দ্রুত ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে তাতে আমরা আশাবাদী যে দ্রুত অপরাধীরা শাস্তি পাবে


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only